1. [email protected] : admin :
কে হবে চ্যাম্পিয়ান আর্জেন্টিনা নাকি ব্রাজিল, লড়াই দু'জনের মেসি ও নেইমার - Coxsbazarnewsagency.com
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:১৬ পূর্বাহ্ন

কে হবে চ্যাম্পিয়ান আর্জেন্টিনা নাকি ব্রাজিল, লড়াই দু’জনের মেসি ও নেইমার

এস কে দে
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ১০ জুলাই, ২০২১

অধীর আগ্রহে তাকিয়ে আছে সারা বিশ্ব। কে হবে চ্যাম্পিয়ান আর্জেন্টিনা নাকি ব্রাজিল, লড়াই দু’জনের মেসি ও নেইমারে মাঝে।
লিওনেল মেসি ‘ভিন্নগ্রহের’ খেলোয়াড়- কথাটা প্রায়ই শোনা যায়। আর্জেন্টাইন তারকার জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। এর সবটুকুই অর্জন কি বার্সেলোনাকে ঘিরে? আপাত দৃষ্টিতে দেখলে বিষয়টা তেমনই। বার্সেলোনার হয়ে মেসির এখন পর্যন্ত ৩৪টি ট্রফি। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে কোনও সাফল্য নেই!

এ নিয়ে নিন্দুকদের কম কথা শুনতে হয় না তাকে। ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে এসে আবারও সুযোগ এসেছে নিজেকে নতুন করে প্রমাণের। দেশের জন্য কিছু একটা করার। বাংলাদেশ সময় রবিবার ভোর ৬টায় কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে জিততে পারলেই অধরা ট্রফির ছোঁয়া পাবেন ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী।

কিন্তু পথ যে বেশ কঠিন। বার্সেলোনার জার্সিতে অনেক কঠিন পথ পাড়ি দেওয়ার উদাহরণ আছে ঠিকই, কিন্তু আর্জেন্টিনার জার্সিকে ফাইনাল হারের ক্ষতই কেবল সঙ্গী তার।
বার্সেলোনায় দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পুরস্কার হিসেবে টানা চারবারসহ মোট ছয়বার ব্যালন ডি’অর জয়ের কৃতিত্ব তার। পাশাপাশি সর্বোচ্চ ছয়বার ইউরোপীয় গোল্ডেন শু জিতেছেন। এছাড়া লা লিগা, চ্যাম্পিয়নস লিগ, কোপা দেল রেসহ অনেক কিছু জয়ের স্বাদ নিয়েছেন। কিন্তু দেশের জার্সি গায়ে কোনও ট্রফি না জেতার আক্ষেপ রয়েই গেছে। এইতো কিছুদিন আগে জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫০ ম্যাচ খেলার নতুন রেকর্ড গড়েছেন। গোলও কম করেননি, ৭৬টি। এতকিছুর পরও অধরা ট্রফির কাছে গিয়ে ছোঁয়া হচ্ছে না!

একদমই যে সুযোগ পাননি তা কিন্তু নয়। এবারের কোপার আগে আলোকিত ক্যারিয়ারে বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় চারবার ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা আছে। কিন্তু সবক’টিই তিক্ততায় ভরা। নেই কোনও আনন্দ-উচ্ছ্বাস। ২০১৪ সালে বিশ্বকাপে ব্রাজিলের মাঠে প্রথম ট্রফি ছোঁয়া দূরত্বে থেকে শূন্য হাতে বিদায় নিতে হয়েছিল। জার্মানির কাছে ১-০ গোলে হেরে মেসিরা পারেননি কোটি সমর্থকের মুখে হাসি ফোটাতে।

কোপা আমেরিকায় তিনবার ফাইনালে যাওয়ার অভিজ্ঞতা আছে মেসির। ২০০৭ সালে ভেনেজুয়েলার মাঠে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের কাছে ৩-০ গোলে হারে সেই স্বপ্নে বড় ধাক্কা খেতে হয়। ২০১৫ ও ২০১৬ সালে টানা দুটি কোপায় ফাইনালে উঠে আবারও সমর্থকদের চরম হতাশ করেন। দুইবারই চিলির কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ।

ক্যারিয়ারের শেষ সময়ে এসে আরও একটি কোপার ফাইনালে পা রেখেছেন মেসি। আগামী কোপায় আর পাওয়া হবে কিনা সেই সংশয় আছে যথেষ্ট। কেননা বয়স যে বড় বাধা। তাই রবিবার মারাকানায় স্বাগতিকদের হারিয়ে ট্রফি জিততে পারলে তা হবে বড় স্বপ্নপূরণ। এবার কি ফুটবলদেবতা মেসির দিকে তাকাবেন?

এবার মেসির ফর্ম নতুন কিছুর জানান দিচ্ছে। এখন পর্যন্ত চারটি গোল করে গোল্ডেন বুট জেতার লড়াইয়ে আছেন। এছাড়া অ্যাসিস্টও কম নয়। পাঁচটি গোলের পেছনে সরাসরি ভূমিকা। সব ম্যাচেই দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। তাই সমর্থকরা খুব করে চাইছেন এবার অন্তত মেসির হাতে ট্রফি ধরা দিক। ক্যারিয়ারে নতুন পালক যুক্ত হোক। কিন্তু পথটা যে খুব কঠিন। ব্রাজিলের মাঠে তাদের হারানো সহজ কথা নয়।

এমনিতেই বার্সার হয়ে মেসি যতটুকু খেলেন, ঠিক জাতীয় দলে তেমনটি দেখা যায় না বলে নিন্দুকেরা অপবাদ দিয়ে থাকেন। অথচ মাঠে নামলে নিজের সেরাটা দিয়েই খেলতে দেখা যায়। কিন্তু ওই যে দেশের হয়ে কোনও ট্রফি নেই। যা হয়তো মেসিকে বেদনাও কম দিচ্ছে না। তাই বাংলাদেশ সময় রবিবার ভোরে ব্রাজিলকে হারাতে পারলে সব সমালোচনার জবাব দেওয়া হবে তার। মেসি পারবেন তো?

সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021-22 CoxsbazarnewsAgency.com