রামুতে এক সাথে ২ বোনের আত্ন হনন

কক্সবাজার: “মৃত্যুর জন্য কেহ দায়ী নই” চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করে পৃথিবী থেকে চলে গেলেন আপন ২ বোন। পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে লাশ ও চিরকুটটি উদ্ধার করেছে। ১০ নভেম্বর দুপুর আড়াই টার দিকে এ চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে কক্সবাজারের রামু উপজেলার রশিদ নগর ইউনিয়নের সিকদার পাড়া গ্রামে। আত্নহত্যাকারী ২ বোন একই এলাকার নজির হোসেনের মেয়ে মরজিনা আক্তার (১৭), তসলিমা আক্তার (১৩)। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার নুরুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।
স্থানীয় চৌকিদার জয়নাল উদ্দীনের বরাত দিয়ে জানা যায়, ঘটনার সময় মা বাবার ও অন্যন্যা সদস্যরা না থাকার সুবাদে এক রুমে গিয়ে তারা পড়নের উড়না পেছিয়ে ঘরের ভীমের সাথে জড়িয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে তাদের ছোট ভাই তাদের লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়। পরে শোর চিৎকারে এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে মহিলা মেম্বার রাবিয়া খানমকে খবর দেন। মহিলা মেম্বার মারপথ খবর পেয়ে তাদের বাসায় গিয়ে রামু থানার পুলিশকে জানানো হলে তাৎক্ষণিক ওসি তদন্ত মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে লাশের সুরহতাল রিপোর্ট তৈরি করে এবং লাশ থানায় নিয়ে যায়। চৌকিদার জয়নাল আরো জানায়, এসময় তাদের লিখে যাওয়া একটি চিরকুট উদ্ধার করে পুলিশ। এ চিরকুটে তারা লিখেছেন আমাদের মৃত্যুর জন্য মা-বাবা এমন কি পরিবারের কেউ দায়ী নয়। সূত্রে জানা গেছে, মরজিনা আক্তারের বিয়ের কথাবার্তা চলছিল। আর তসলিমা স্থানীয় একটি হাই স্কুলের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। তবে তারা কি কারনে আত্নহত্যা করেছে কেউ বলতে পারেনি। রামু থানার ওসি তদন্ত মিজানুর রহমান জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য তাদের লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*