বিনা নোটিশে উচ্ছেদ সহস্রাধিক মানুষ গৃহহীন

সংবাদদাতা: কক্সবাজারে বিনা নোটিশে বসতবাড়ি উচ্ছেদে দেড় শতাধিক পরিবারের সহস্রাধিক মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে। এতে চরম বিপাকে পড়েছে এসএসসির অর্ধশতাধিক পরীক্ষার্থী। শহরতলীর বাদশা ঘোনা, ফাতের ঘোনা, লাইট হাউস পাড়ার এসব মানুষ মাথাগুজার ঠাই পেতে রাজপথে বিক্ষোভ করছে।
৩১ জানুয়ারি দুপুরে বিক্ষোভ মিছিল সহকারে ক্ষতিগ্রস্থ নারী-পুরুষ ও শিশুরা কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এসে অবস্থান ধর্মঘট করে। অবস্থান ধর্মঘট শেষে ক্ষতিগ্রস্তরা জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, জেলা প্রশাসন ও দুদকের একটি টীম এলাকায় গিয়ে সরকারি খাস জমিতে বসবাসকারি এসব লোকজনকে রাতের ভেতর চলে যেতে মৌখিক নির্দেশনা দিয়ে আসেন। সকালে এসে কোন কিছু বুঝে উঠার আগে বুল্ডোজার দিয়ে পাহাড়-সমতল সব জায়গার কাঁচা ও আধাপাকা এবং বাঁশের ঘর ভেঙ্গে দেন। ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে রেজিস্টার জায়গার ঘরও। তাদের জমি রেজিষ্ট্রি রয়েছে জানানোর পরও কর্ণপাত করা হয়নি বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্থদের। সমাজ কমিটির সাবেক সভাপতি সোনামিয়া বলেন, ১৯৯১ সালের জলোচ্ছাসে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে জেলার বিভিন্ন উপকূলীয় এলাকা হতে পাহাড় ঘেরা এ এলাকায় এসে আবাস গড়ে শত শত মানুষ। এখানে গড়ে উঠেছে অসংখ্য শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। এলাকায় রয়েছে অর্ধসহস্রাধিক নানা বয়সের শিক্ষার্থী। রয়েছে নানা চাকুরীজিবীও। তিনি আরো জানান, মিয়ানমারে জাতিগত নিপীড়নের শিকার ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১০ হাজার একরেরও বেশি পাহাড়ি ভূমি বিরাণ করে আশ্রয় দিয়েছে। সেখানে আমাদের শেষ সম্বল দিয়ে তৈরী করা মাথাগুজার ঠাঁই বিনা নোটিশে উচ্ছেদ করে গৃহহীন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*