করোনা উপসর্গের রোগীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলায় মেম্বারের নেতৃত্বে হামলা

সিএনএন রিপোর্ট :: কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউনিয়নে করোনা উপসর্গের রোগীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলায় খুরুশকুলে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মাখন মেম্বারের নেতৃত্বে স্থানীয় মিলন দে এর বাড়িতে হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা।

১৬ এপ্রিল খুরুশকুল দক্ষিণ হিন্দু পাড়ায় এঘটনা ঘটে। ঘটনায় একই পরিবারে প্রায় ১৫জন সদস্য আহত হয়েছে ।

অভিযোগ রয়েছে, খুরুশকুল দক্ষিণ হিন্দু পাড়ার মাখন মেম্বারের ভ্রাতুষ্পুত্র আয়ন দে করোনা উপসর্গ নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে বাড়িতে আসলে নিরাপত্তার স্বার্থে এলাকার লোকজন আয়ন দে এবং তার পরিবারের সদস্যদেরকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধির নির্দেশনা অনুযায়ী হোম কোয়ারেন্টেনে থাকার জন্য বলে। এতেই ওই এলাকার জনপ্রতিনিধি স্থানীয় ইউপি সদস্য মাখন দে ও তার পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে মাখন মেম্বারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী একই এলাকার স্থানীয় মৃত মিলন দে এর বাড়ীতে তার পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে মৃত মিলন দে এর পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় ননি গোপাল দে এর পুত্র শ্রীধন দে অভিযোগ করে বলেন, আয়ন দে করোনা উপসর্গ নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে বাড়ীতে আসলে তাকে ও তার পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলে আয়ন দে এর চাচা মাখন মেম্বার সহ তার দলবল আমাদের উপর হামলা চালিয়েছে। ধারালো কিরিচ, দা, ছোরা, লোহার রড, হাতুড়ি, লাঠি সহ মারাত্মক অস্ত্রশস্ত্র আমার পরিবারের হামলা চালায় এবং ভাংচুর করে। আমাদের বাড়িতে থাকা পান ব্যবসার ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকাও নিয়ে যায়।

শ্রীধন দে আরও বলেন, মাখন মেম্বারের হামলায় আমি, আমার ছেলে সাগর দে, আমার স্ত্রী পতি দে, প্রতিবেশী আশীষ দে, নিদীপ দে, আদর দে, রনজিত দে, আদর দে সহ প্রায় ১৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের অনেককে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। মাখন মেম্বার সন্ত্রাসী প্রকৃতির হওয়ায় আমি ও আমার পরিবার এবং প্রতিবেশিরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। মাখন মেম্বার সহ তার দলবলের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*