তানজিদ ঝড়ের পর বাংলাদেশের সিরিজ জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক:
সফরের তৃতীয় ম্যাচে এসে লড়াই করার মতো স্কোর গড়েছিল ইংল্যান্ড। ম্যাচের ফলে যদিও প্রভাব ততটা পড়েনি। শুরুতে ঝড় তুলেছেন তানজিদ হাসান। কার্যকর ফিফটি এসেছে মাহমুদুল হাসান ও আকবর আলির ব্যাট থেকে। একমাত্র টি-টোয়েন্টির মতো যুব ওয়ানডে সিরিজও জিতেছে বাংলাদেশের যুবারা।
< দ্বিতীয় যুব ওয়ানডেতে ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ অর্নূর্ধ্ব-১৯ দল। তিন ম্যাচের সিরিজ জিতে নিয়েছে প্রথম দুই ওয়ানডেতেই।কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার ইংলিশরা ৫০ ওভারে তুলেছিল ৭ উইকেটে ২৫৬। বাংলাদেশ জিতেছে ১৩ বল বাকি রেখে। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ইংলিশদের এ দিন দারুণ শুরু এনে দেন বেন চার্লসওয়ার্থ ও উইল স্মিড। ১৮ ওভারে ৮৭ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন দুজন। তবে দুজন আউট হন পরপর দুই ওভারে। ৩৯ রান কর চার্লসওয়ার্থকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন আশরাফুল ইসলাম। পরের ওভারেই ৪৩ রান করা স্মিডকে বোল্ড করে দেন লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন। সেই জোড়া ধাক্কা ইংলিশরা সামাল দেয় দারুণভাবে। তৃতীয় উইকেটে ১১১ রানের জুটি গড়েন জেমি স্মিথ ও লুইস গোল্ডসওয়ার্থি। এই দুজনের ব্যাটে ৪০ ওভারও পেরিয়ে যায় ইংল্যান্ড। দুজনকেই ফেরান মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। দুটি করে চার ও ছক্কায় ৪৮ রান করেন স্মিথ। আগের ম্যাচে ৬১ রান করা গোল্ডসওয়ার্থি এবার ৬টি চার ও ২ ছক্কায় করেন ৭৩ রান। মৃত্যুঞ্জয় পরে আরও দুটি উইকেট নিয়ে রাশ টানেন ইংলিশদের রানের গতিতে। শেষ দিকে ৫ বাউন্ডারিতে জর্জ বল্ডারসনের ১৪ বলে ২৯ রানের ইনিংসে ইংলিশরা পেরোয় আড়াইশ। রান তাড়ায় বাংলাদেশের শুরুটা হয় আরও ভালো। দারুণ ব্যাটিংয়ে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন তানজিদ। আরেকপাশে সঙ্গ দেন প্রান্তিক নওরোজ। ১২ ওভারেই এই জুটি তোলে ৮৮ রান। তানজিদ ফিফটি স্পর্শ করেন ৩২ বলে। প্রান্তিক ফেরেন ৪২ বলে ৩১ রান করে। এমন শুরুর পরও কিছুটা পথচ্যুত হয়েছিল বাংলাদেশের ইনিংস। ১২ চার ও ১ ছক্কায় ৪৬ বলে ৭০ রান করে আউট হন তানজিদ। তিনে নামা পারভেজ হোসেন ও মিডল অর্ডারের বড় ভরসা শামিম হোসেনও ফেরেন দ্রুত। ৬ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের রান হয়ে যায় ৪ উইকেটে ১২২। সেখান থেকে পঞ্চম উইকেটে দুর্দান্ত জুটিতে দলকে জয়ের কাছে নিয়ে যান মাহমুদুল হাসান ও আকবর আলি। তানজিদের ঝড়ো শুরুর সৌজন্যে রান রেটের চাপ ছিল না। এই দুজন ঠাণ্ডা মাথায় এগিয়ে নেন দলকে। গড়েন ১০৬ রানের জুটি। অধিনায়ক ও কিপার-ব্যাটসম্যান আকবর আউট হয়ে যান ৭৫ বলে ৫৭ রান করে। তবে দল ততক্ষণে জয়ের খুব কাছে। ৯২ বলে অপরাজিত ৫৮ রান করে দলের জয় নিয়েই ফেরেন মাহমুদুল। সংক্ষিপ্ত স্কোর: ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯: ৫০ ওভারে ২৫৬/৭ (চার্লসওয়ার্থ ৩৯, স্মিড ৪৩, স্মিথ ৪৮, গোল্ডসওয়ার্থি ৭৩, হিল ১২, কক্স ০, মোজলি ১, বল্ডারসিন ২৯*, অলড্রিজ ৪*; সাকিব ১/৫১, মৃত্যুঞ্জয় ৪/৫০, রাকিবুল ০/৪৫, শামিম ০/৩১, আশরাফুল ১/৪১, রিশাদ ১/৩১)। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯: ৪৭.৫ ওভারে ২৫৮/৫ (তানজিদ ৭০, প্রান্তিক ৩১, পারভেজ ১১, মাহমুদুল ৫৮*, শামিম ০, আকবর ৫৭, মৃত্যুঞ্জয় ১২*; কাদরি ৩/৪৮, হিল ১/৪০, বল্ডারসন ১/৪৯)। ফল: বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৫ উইকেটে জয়ী সিরিজ: ৩ ম্যাচ সিরিজে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ২-০তে এগিয়ে ম্যান অব দা ম্যাচ: তানজিদ হোসেন

মতামত দিন