খুরুস্কুলে ভূমিদস্যু মৃদুল ও তার বাহিনীর তান্ডবে এক পরিবার ঘরছাড়া

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দীর্ঘদিন বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদে  ব্যর্থ হয়ে অবশেষে একটি পরিবারকে জোর পূর্বক তাড়িয়ে দিয়ে ঐ ঘরে তালা লাগিয়ে দিয়েছে স্থানীয় দূর্বৃত্তরা। এর আগে সন্তাসীরা ঐ পরিবারের কয়েকজন কে বেদম প্রহার ও স্বর্বস্ব লুটে নেয়। এমনই এক হ্রদয় বিদারক এ ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার খুরুস্কুল ইউনিয়নের পূর্ব হিন্দু পাড়ায়।এ ঘটনায় এখন পুরো এলাকায় চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। ঘটনার বিবরণে প্রকাশ একই পাড়ার রঞ্জিত দে ও প্রতিবেশী মৃদুল কান্তি শীলের পরিবারের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিলো দীর্ঘদিনের।ইতিমধ্যে মৃত সতীশ শীলের পুত্রদ্বয় প্রতিবেশী রঞ্জিতের পরিবারকে একাধিক বার ঘরভিটে ছেড়ে অন্যত্ত চলে যাওয়ার হুমকি ধমক দিয়ে আসছিল। কিন্তু রঞ্জিতের পরিবার তাদের ভিটেমাটি ছেড়ে যেতে রাজি না হওয়ায় মৃদুল শীলরা দু দফা সশস্ত্র হামলা চালায়। এর মধ্যে গত ১০ ই মার্চ রঞ্জিতের স্ত্রী মিনু দে তার এক নিকট আত্মীয়ের বিবাহ অনুষ্ঠান শেষে রামু থেকে সি এন জি যোগে বাড়ি ফেরার সময় রাত আনুমানিক সাড় আটটার দিকে খুরুস্কুল ব্রীজের সংনিকটে রঞ্জিতের স্ত্রী মিনু ও তার অন্য স্বজনদের গতিরোধ করে মৃদুল শীলরা পূর্ব পরিকল্পিত আক্রমন চালিয়ে বেধম প্রহার করে তারা।এ সময় মৃদুল শীলরা মিনু দে টানা হিছঁড়ে করে ও এক পর্যায়ে ৩০০ টাকার একটি নন জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর দিতে অস্তের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে মিনুদর কাপড় চোপড়ও ছিঁড়ে যায়।মিনুও তার অন্য স্বজনদের আর্তচিৎকারে জড়ো হওয়া পথচারীরা তাদের উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা জন্য নিয়ে যায়। তার প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মিনু দে নিজে বাদি হয়ে ভূমিদস্যুতায় দায়ে মৃদুল শীল দ্বয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনা জানতে পেরে ভূমিদস্যু মৃদুল ও তার ভাই রুপন সহ অপরাপর আরো ৭/৮ জন এলাকার চিহ্নিত সন্তাসীরা মিলে মিনুর বসত ভিটায় ভাংচুর চালায় ও তাদের উপর চড়াও হয়ে বাড়ি থেকে জোর পূর্বক বের করে দিয়ে ঐ ঘরের দরজা টিন দিয়ে তালাবদ্ধ করে দেয়। ভূমি দস্যুদের এরূপ তাণ্ডবতায় মিনু দে ও তার পরিবারের প্যারালাইসিস স্বামী রঞ্জিত সহ সদস্যরা বর্তমানে খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবনযাপন করছে। মিনুদে আরও জানায় মৃদুল গংরা তাদের কাছে ঘর ভিটি বিক্রি না করলে দুনিয়া থেকে চিরতরে সরিয়ে দেয়ার যুগপৎ হুমকি দিচ্ছে। তাদের এমন আস্ফালনে মিনু দের পরিবার দারুণ আতংকের মধ্যে রয়েছে। সর্বশেষ সুত্রে আরও জানা গেছে মিনু দে  এই ঘটনার জেরে কক্সবাজার নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট আদালতেও একটি মামলা করেছে। স্হানীয় সচেতন মহল বলছে মৃদুল শীল দ্বয়রা আসলে প্রকৃতই ভূমিদস্যু।তারা দেশের প্রচলিত আইন কে তোড়ায় কেয়ার করেন না। তাদের বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্হা এবং মিনুদের পরিবারের শান্তিপূর্ণ জীবন যাপনে কঠোর ব্যবস্হা গ্রহণ অন্ত্যান্ত জরুরি। নচেৎ এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট সহ ভূমি দস্যুরা মাথা ছাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*