লোহাগাড়ায় ইয়াবাসহ আটক ৩

রায়হান সিকদার: চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের আরকান মহাসড়কের খাঁন দিঘী এলাকা থেক ঢাকা অভিমুখী শ্যামলী এসি বাসে তল্লাসী চালিয়ে ১৪ হাজার ইয়াবাসহ ৩ মাদক পাচারকারীকে আটক করেছে পুলিশ। ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মুল্য ২৮ লক্ষ টাকা।

বিষয়টি লোহাগাড়া থানার ওসি মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম উক্ত প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃত বহিরাগত ৩ পাচারকারীর নাম হল মানিকগঞ্জ গোবিন্দনগর থানার সিংগাইর এলাকার মৃত হিম্মত আলীর পুত্র আবুল কালাম (৩৮), কুমিলা দাউদকান্দি বাসরা বিল্লাল হোসেনের পুত্র জয়নাল আবেদীন (২০) এবং পটুয়াখালী দক্ষিণ বিরাজলা এলাকার ইদ্রিস হাওলাদের পুত্র মাসুদ রানা (৩০)।

সুত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৫ মে রাত্রে লোহাগাড়া থানার ওসি মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম,থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) মুহাম্মদ আবদুল জলিলের নেতৃত্বে একটি পুলিশি টিম উল্লেখিত এলাকায় ঢাকা অভিমুখী একটি শ্যামলী এসি বাস (রেজিঃ নং ঢাকামেট্টো-ব-১৫- ২৬৫১) গাড়ির বডির সাইট কভারের ভিতরে তল্লাসী চালিয়ে ১৪হাজার ইয়াবা ট্যাবলেটসহ বহিরাগত ৩ মাদক পাচারকারীকে আটক করে থানার হেফাজতে নিয়ে আসে। ওসি মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন,শ্যামলী এসি বাস যোগে ৩ মাদক পাচারকারী ১৪ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো গাড়ির বডির সাইট কভারের ভিতর দিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাচার করার জন্য নিয়ে যাচ্ছিল। উক্ত ইয়াবাসহ ৩ মাদক পাচারকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। ১৪ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মুল্য ২৮ লক্ষ টাকা হবে বলেও তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, আমরা লোহাগাড়া থানা পুলিশ প্রতিদিন ইয়াবার বড় বড় চালান উদ্ধার এবং অনেক মাদক বিক্রেতারদেরকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেছি। আটককৃত ৩ বহিরাগত ইয়াবা পাচারকারীর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে এবং ২৬মে সকালে তাদেরকে চট্টগ্রাম আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আবদুল জলিল উক্ত প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

মতামত দিন