মিয়ানমার অনেক বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিয়ানমার অনেক বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা আইওএম এর মহাপরিচালক উইলিয়াম ল্যাসি সুইং। তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও পূনর্মিলনে আইওএমের সফলভাবে কাজ করছে। মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য এখনও সহায়ক পরিবেশ তৈরি হয়নি। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত আমরা তাদের পাশে থাকব। মানবিক সহায়তা অব্যাহত রাখব। সেক্ষেত্রে তিনি মিয়ানমারকেও সহযোগিতার প্রস্তাব দেন। ১৬ জুলাই দুপুরে উখিয়া কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে আইওএম এর মহাপরিচালক উইলিয়াম ল্যাসি সুইং সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
উইলিয়াম ল্যাসি সুইং বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ, সম্মানজনক ও সেচ্ছামূলক প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টি হতে যথেষ্ট সময় লাগবে বলেও মনে করে তিনি। তবে রোহিঙ্গাদের অধিকার ফিরে পাওয়া ও নিজ ঘরে ফিরে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট ক্ষেত্র ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছে বলেও জানান। এজন্য আনান কমিশনের রিপোর্ট, জাতিসংঘের সাথে মিয়ানমারের সমঝোতা স্মারক সই ও বাংলাদেশ-মিয়ানমার চুক্তিকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে অগ্রগতির ধাপ বলে উল্লেখ করে আইওএম এর মহাপরিচালক।
এসময় জাতিসংঘের অন্যান্য সংস্থা ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আওএমও সংযুক্ত থাকবে বলে জানান তিনি। আইওএম মহাপরিচালক এসময় আরও বলেন, এই মুহুর্তে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে চলতি বর্ষায় রোহিঙ্গাদের ঝুঁকি থেকে নিরাপদে রাখা। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকার ও স্থানীয় জনগণের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো কাজ করছে। রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয় পাহাড়, পরিবেশ ও জনগণ যে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো গুরুত্বের সাথে দেখছে।
আইওএম মহাপরিচালক হিসেবে বাংলাদেশে তার এই সর্বশেষ সফরে তিনি আইওএমের ত্রাণ বিতরণ কেন্দ্র, শরণার্থীদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, রোহিঙ্গাদের ক্যাম্প উন্নয়ন কাজ, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় রোহিঙ্গা এবং স্থানীয় মা ও শিশুদের সাথে কথা বলে তাদের চিকিৎসা সেবার খোঁজ-খবর নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*