মাদরাসার কোন শিক্ষার্থী সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তিতে জড়িত থাকার প্রমাণ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক:
মাদরাসার কোন শিক্ষার্থী সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তিতে জড়িত থাকার প্রমাণ নেই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর এ.কে.এম ছায়েফ উল্যা।
তিনি বলেন, শিক্ষানীতির কারণে আজকের মাদরাসা শিক্ষা অনেক উন্নত ও সময়োপযোগী। সরকার মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে স্বার্থক ভূমিকা রেখেছে। সঠিক শিক্ষার কারণে মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত কেউ সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তিকে জড়িত থাকার প্রমাণ দেশের প্রশাসন ও গোয়েন্দা সংস্থার কাছে নেই।
বুধবার (৩০ জানুয়ারি) সকালে কক্সবাজার ইসলামিয়া মহিলা কামিল (মাস্টার্স) মাদরাসায় সিরাতুন্নবী (স.) মাহফিল ও বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রফেসর এ.কে.এম ছায়েফ উল্যা প্রধান অতিথি ছিলেন।
তিনি বলেন, মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে দেশের সকল শিক্ষাবোর্ড আন্তরিক। শিক্ষা ক্ষেত্রে সরকারের সবচেয়ে বড় অর্জন জাতীয় শিক্ষানীতি-২০১০। আমরা মাদরাসা শিক্ষাকে আরো বেশি সময়োপযোগী ও সমৃদ্ধ করতে চাই।
মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বলেন, কোন সরকারই সঠিক শিক্ষানীতি প্রণয়ন করতে পারেনি। একমাত্র আওয়ামী লীগ সরকারই জাতীয় শিক্ষানীতি উপহার দিতে সক্ষম হয়েছে।
প্রফেসর এ.কে.এম ছায়েফ উল্যা মাদরাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের আরবি ভাষায় দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য কক্সবাজারে প্রশিক্ষণ কর্মশালা ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান।
অধ্যক্ষ মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ নূরীর সভাপতিত্বে মাদরাসা মিলনায়তনে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, কক্সবাজার পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর মোহাম্মদ, সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর নাসিমা আকতার বকুল, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেহেনা বেগম চৌধুরী।
মাদরাসার শিক্ষক অধ্যাপক মুহাম্মদ ফরিদুল আলম ও মাওলানা কামাল উদ্দিন এর যৌথ সঞ্চালনায় সিরাতুন্নবী (স.) মাহফিলে বিষয় ভিত্তিক আলোচনা করেন সদরের বাংলাবাজার ছুরতিয়া সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবুল কালাম মুরাদ, ইসলামিয়া মহিলা কামিল (মাস্টার্স) মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা মুজিবুর রহমান ও হাফেজ মাওলানা ফরিদুল আলম।
সভার প্রারম্ভে স্বাগত বক্তব্যে অধ্যক্ষ মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ নূরী দ্বীনি শিক্ষার উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে সবার সহযোগিতা ও পরামর্শ কামনা করেন।
মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর এ.কে.এম ছায়েফ উল্যাসহ সভায় আগত অতিথিদের মাদরাসার পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়। এ সময় সাংবাদিক শামসুল হক শারেকসহ অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে বার্ষিক ক্রিড়া, সাহিত্য-সংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

মতামত দিন