কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-১২

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:: কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত ১২ জনকে আটক করেছে। গত ৮ সেপ্টেম্বর সকাল হতে ০৯ সেপ্টেম্বও সকাল পর্যন্ত অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার (পিপিএম) পুলিশ পরিদর্শ (তদন্ত) মোঃ খায়রুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্স) মোহাম্মদ আরিফ ইকবাল, এসআই সাইফুল ইসলাম, এসআই কাঞ্চন চন্দ্র দাশ, এসআই বেলাল উদ্দিন, এএসআই কামাল হোসেন-১, এএসআই লিটন মিয়া, সঙ্গীয় ফোর্স এবং ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান খান সহ কক্সবাজার সদর মডেল থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ১২ জন আসামীকে গ্রেফতার করেন কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ।

নিয়মিত মামলা সংক্রান্তে গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন ……..

১। দুর্জয় বিশ্বাস , পিতা-মৃত অরুন বিশ্বাস , সাং-পুরাতন পান বাজার, বড় বাজার, থানা ও জেলা-কক্সবাজার
২। মোঃ সোহেল, পিতা-নুর মোহাম্মদ, সাং-নাইট্যাংপাড়া, টেকনাফ, পৌরসভা, থানা-টেকনাফ,
জেলা-কক্সবাজার।
৩। সঞ্জয় দে, পিতা-সুনিল দে, সাং-হিন্দুপাড়া, খুরুশকুল, থানা ও জেলা-কক্সবাজার
৪। আদর দে, পিতা-সুনিল দে, সাং-হিন্দুপাড়া, খুরুশকুল, থানা ও জেলা-কক্সবাজার
৫। মোঃ আব্দুল মালেক, পিতা-আব্দুর রহিম, সাং-তুলাবাগান, ০১নং ওয়ার্ড, খুনিয়া পালং ইউপি,
থানা-রামু, জেলা-কক্সবাজার।
৬। জাহেদুল আলম, পিতা-মোঃ সেলিম, সাং-ঘোনারপাড়া, থানা ও জেলা-কক্সবাজার।
৭। মোঃ নাছির, পিতা-শফিউল আলম, সাং-ফদনার ডেইল, থানা ও জেলা-কক্সবাজার।
৮। মোঃ ইদ্রিস, পিতা-রুহুল আমিন, সাং-সমিতি পাড়া, থানা ও জেলা-কক্সবাজার।
৯। উজ্জল সেন, পিতা-মৃত বিশুরাম, সাং-উত্তর ধর্মপুর, থানা-সাতকানিয়া, জেলা-কক্সবাজার।
১০। মেহেদী হাসান, পিতা-আমির হামজা, সাং-খুরুলিয়া বেপারী পাড়া, থানা ও জেলা-কক্সবাজার।
১১। নয়ন কান্তি দে, পিতা-বিমুল কান্তি দে, সাং-আদিনাথ, ঠাকুরতলা, থানা-মহেশখালী, জেলা-কক্সবাজার।

ওয়ারেন্ট সংক্রান্তে গ্রেফতারকৃত আসামী হলেন,নুরুল আলম, পিতা-মোঃ আলম, সাং-সাতজুলাকাটা, ইসলামাবাদ, থানা ও জেলা-কক্সবাজার।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার (পিপিএম) তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে তাহাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এলাকার আম জনতা ও পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতের লক্ষ্যে মামলায় অভিযুক্ত ও চিহিৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মতামত দিন