কক্সবাজারে মেম্বারের নেতৃত্বে ১৮ হাজার ইয়াবা লুট!

নিজস্ব প্রতিবেদক:  কক্সবাজার সদরের ভারুয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার সিরাজুল হকের নেতৃত্ব ১৮ হাজার ইয়াবা লুট করার খবর পাওয়া গেছে। ৮ আগষ্ট রাত আনুমানিক ৮টার দিকে ইউনিয়নের ঘোনা পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানাগেছে, ঘোনাপাড়া এলাকার মৃত মমতাজ আহমদের ছেলে ৩টি হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামী সরওয়ারের পরিচিত টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অবস্থানরত ছাবের আহমদ নামের এক যুবককে ক্রয় করার কথা বলে ইয়াবা নিয়ে ভারুয়াখালীতে আসতে বলে। ওই যুবক সরল বিশ্বাসে ১৮ হাজার ইয়াবা নিয়ে ভারুয়াখালী ঘোনা পাড়া এলাকায় পৌঁছলে পুর্বে থেকে উৎপেতে থাকা একই এলাকার মৃত রশিদ আহমদের ছেলে বর্তমান মেম্বার সিরাজুল হক ও মৃত মমতাজ আহমদের ছেলে সরওয়ারের নেতৃত্বে আরো ৩/৪ জন লোক তাকে ধরে নিয়ে নির্জন পাহাড়ে তুলে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ইয়াবাগুলো কেড়ে নিয়ে ছাবের আহমদকে তাড়িয়ে দেয়। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে মূহুর্তের মধ্যে স্থানীয়দের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যক্ষদর্শী এক যুবক জানায়, ইয়াবা লুটের ঘটনাটি কোন আইন-শৃংখলা বাহিনীকে জানালে এলাকায় কেউ থাকতে পারবে না বলে হুংকার দেয় মেম্বার সিরাজুল হক ও সরওয়ার। বর্তমানে ইয়াবা গুলো মেম্বারের কাছে থাকতে পারে বলে জানায় এ যুবক।
কক্সবাজারের ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মিনহাজ মাহমুদ ভুঁইয়া বলেন, ইয়াবা উদ্ধারের জন্য পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। আর ইয়াবা লুটের ঘটনায় জড়িত সকল অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে। এ বিষয়ে মেম্বার সিরাজুল হককে একাধিকবার ফোন দেয়া হয় কিন্তু সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য দেয়া সম্ভব হয়নি।

মতামত দিন