এসএ পরিবহনের মাধ্যমে ইয়াবা চালান 

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:  চট্টগ্রাম থেকে ভাটিকা প্রসাধনীর বক্সে করে কুরিয়ার সার্ভিস এসএ পরিবহনের মাধ্যমে ময়মনসিংহে ৩৭ হাজার ৫০০ পিস ইয়াবা পাঠায় মাদকব্যবসায়ী চক্র। এসময় অভিযান চালিয়ে ইয়াবাগুলোসহ দুজনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১৪)।

আটকরা- মো. আলী রাজ (২০) এবং রুবেল মিয়া ওরফে নীরব (২০)।

বুধবার রাতে নগরীর চামড়াগুদাম এলাকা থেকে এ দুজনকে আটক করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-১৪ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১৪ এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক শেখ নাজমুল আরেফিন পরাগ।

তিনি জানান, মাদক ব্যবসায়ীরা চট্টগ্রাম থেকে কুরিয়ার সার্ভিস এসএ পরিবহনের মাধ্যমে ময়মনসিংহ শহরে মাদক তথা ইয়াবার চালান কৌশলে আনা-নেয়া হচ্ছে এমন খবর জানতে পারে র‌্যাব-১৪। পরে ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত মাদক চক্রের ওপর নজরদারি চালানো হয় এবং সত্যতা পাওয়া যায়।

তিনি বলেন, “এরই পরিপ্রেক্ষিতে রোববার রাতে র‌্যাবের গোয়েন্দা দল জানতে পারে এসএ পরিবহন থেকে মাদকের একটি চালান চক্রের দুজন লোক নিয়ে যাবে। পরে র‌্যাবের একটি দল ওই এলাকায় ছদ্মবেশে অবস্থান করে। রাত ১০টার দিকে এসএ পরিবহনের পার্সেল সাজনী প্রসাধনীর এক কার্টুন কসমেটিকস্ নিয়ে সন্দেহভাজন আলী রাজ ও রুবেল মিয়া মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যেতে চাইলে তাদের আটক করা হয়।”

পরে প্রসাধনীর এক কার্টুনটি তল্লাশী করে দেখা যায়, ভাটিকা প্রসাধন সামগ্রীর কৌটার ভেতর অভিনয় কায়দায় ইয়াবার চালান নিয়ে যাচ্ছে। এসময় কৌটাগুলোর ভেতর থেকে সাড়ে ৩৭ হাজার ইয়াবা এবং আসামিদের কাছ থেকে নগদ সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন সেট জব্দ করে র‌্যাব।”

আটক আলী রাজের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানায় মাদক মামলা এবং রুবেলের বিরুদ্ধে নেত্রকোনার কলমাকান্দা থানায় মামলা রয়েছে বলেও জানান শেখ নাজমুল আরেফিন পরাগ।

মতামত দিন